প্রোগ্রামিং ও এলগরিদম শিখার জন্য সহায়ক রিসোর্স সমূহ

দারুন একটা কালেকশন !! এটি তাদের জন্য যারা Competitive Programming  পছন্দ করেন, ভাল প্রোগ্রামার হতে চান। এটি আমার লেখা নয় কিন্তু ব্লগে রাখলাম যেন দরকারের সময় কাজে লাগে ):

Mathematics:

 

  • Sieve of Eratosthenes (prime finding)

 

Data Structure:

  • Stack

 

 

 

Sorting:

  • Bubble Sort

 

Searching:

  • Linear Search
  • Binary Search

 

Dynamic Programming:

 

  • Rod Cutting
  • Maximum Sum (1D, 2D)
  • Coin Change

 

Greedy algorithm:

 

  • Activity selection/Task scheduling problem

 

 

Graph Theory:

  • Graph Representation(matrix, list/vector)

 

 

 

Number Theory:

 

http://www.progkriya.org/gyan/basic-number-theory.html

http://forthright48.blogspot.com/p/cpps-101.html

 

  • Josephus Problem

 

  • Probability

 

Computation Geometry:

  • Pick’s Theorem
  • Convex hull

 

Game Theory:

  • Take Away game
  • Nim
  • Sprague-grundy Number

 

String:

  • Naive String matching

 

 

Others:

  • Recursion

মূল  লেখা ( http://iubatians.blogspot.com/2014/03/algorithm-and-programming-technique.html)

So hurry up and keep learning :)

অতলান্তিক

মাঝে মাঝে মনে হুয় আমার জীবন একটা বিশাল বিমানবন্দর, এখানে প্রতিনিয়ত অসংখ্য বিমান উঠানামা করে । আমার  চেনা অচেনা , জানা অজানা কতরকম বিমান  প্রতিদিন এখানে আসে যায় । আমি  অবাক হই , বিমানগুলোকে ধরতে চাই কিন্তু আবার সব ভুলে যাই , ফিরে যাই পুরনো জীবনে  । মাঝে মাঝে নিজের অজান্তেই নিজেকে জড়িয়ে ফেলি অর্থহীন কিছু কর্মকাণ্ডের সাথে , ভেবে নেই আমাকে ধরে রাখার সাধ্য কারও নাই । তবুও বাস্তবতার কাছে হার মানতে হয়, জীবনের ইচ্ছাগুলোকে গলা টিপে হত্যা করতে হয় । এরি মাঝে আমি  বেড়ে উঠি , নানান চাহিদা পুরন করতে বিষণ ব্যস্ত থাকি, স্বপ্ন দেখি আবার ভাঙি, ভালবাসি আবার ভুলে যাই, অভিমান করি কিংবা রাগান্বিত হই, কথা বলি কথা শুনি, এভাবেই  আমি এবং আমরা বেঁচে থাকি । আর ভাবতে পারছি না, কারন আমাদের চিন্তা ভাবনা- চাওয়া পাওয়া সবকিছুই  শুনেছি একটা সীমিত গণ্ডির মাঝে ঘোরপাক খায় কিন্তু আমরা ভাবি আমরা ক্রমেই উপরে উঠে যাচ্ছি । তারপার ও আমি আমাকে নিয়ে আর অনেক দূর যেতে চাই, নতুন করে বাঁচতে চাই । পৃথিবীর সব কিছুর মাঝে মিশে যেতে চাই কিন্তু কাউকে স্পর্শ করতে চাই না । হিমু কিংবা মিসির আলির মতো হতে চাই কিন্তু হিমু কিংবা মিসির আলি হতে চাই না।

নিউক্লিয়ার দেশপ্রেম

অনেকদিন আগে ব্লগে এ “আনু মানুর ভাত চুরি এবং আমাদের নিউক্লিয়ার দেশপ্রেম” শিরোনামে একটা লেখা পড়ছিলাম ।  বিষয় ভাত চুরির অপরাধে ২ টা শিশুকে প্রবল আগ্রহ, উত্তেজনা নিয়ে মারধরের কাহিনী।  কি হতাশার কথা। পেটে ভাত না জুটলে কিসের আইন কিসের মান-ইজ্জত।  দেশকে ভালবাসি বলেই তো বহু ত্যাগ-তিতিক্ষা আর লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে জীর্ণশীর্ণ  এ দেশটাকে পেয়েছি আমরা । সামান্য অর্থ দিয়ে কেনা কোন বস্তুর প্রতি যদি আমদের পাহাড়সম ভালোবাসা থাকে , তাহলে রক্ত দিয়ে কেনা এই বাংলার প্রতি আমাদের ভালবাসা থাকবে না কেন ?  হ্যাঁ ,ভালোবাসা আছে, কিন্তু একে দেখা যায় না ,ছোঁয়া যায় না শুধু অনুভব করা যায় । তবে আমাদের সেই মন আজ চির ক্লান্তিতে ঘুমিয়ে পরেছে । এ কথা যেমনি মিথ্যা নয়, মিথ্যা নয় “আমি দাম দিয়ে কিনেছি বাংলা ,কারো দানে পাওয়া নয়” কবিতার এই লাইন দুটো , তেমনি মিথ্যা নয় আমাদের স্বার্থপরতা কিংবা দুর্বলচিত্ত মানসিকতা । রবীন্দ্রনাথ হয়ত তাই বলেছিলেন,

“সাত কোটি সন্তানেরে হে মুগ্ধ  জননী

রেখেছ বাঙালি করে -মানুষ করনি ”

যত কিছুই বলি না কেন আনু-মানুর ভাত চুরির জন্য যে আমরাই দায়ী সে কথা লুকানো যাবে না । যেই দেশের মানুষ তার খাদ্যের ব্যাবস্থা করতে পারে না সেই দেশে ভাত চুরি গুরুত্বর অন্যায় কিছু নয়। আর এই কারনে যারা আনু মানুকে মারলো তারা আরও বড় অপরাধী, তাদেরকেও শাস্তি পেতে হবে কোথাও না কোথাও…